নারায়ণগঞ্জে চলবে ইলেকট্রনিক ট্রেন বিশ্বের উন্নত দেশের মতো নারায়ণগঞ্জেও চলবে ইলেকট্রনিক ট্রেন। প্রতিদিন এ ট্রেনে গড়ে যাতায়াত করবে প্রায় এক লাখ ২০ হাজার মানুষ। মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবের নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়েছে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এতে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠকে কমিটির সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এ প্রকল্প পিপিপি পদ্ধতিতে যৌথভাবে বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুর সরকার বাস্তবায়ন করবে। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোসাম্মৎ নাসিমা বেগম এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, সরকার টু সরকার ভিত্তিতে পিপিপি পদ্ধতিতে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনে লাইট র‌্যাপিড ট্রানজিট (এলআরটি) স্থাপনের নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে প্রতিদিন গড়ে এক লাখ ২০ হাজার যাত্রী এ ট্রেনে যাতায়াত করতে পারবে। তিনি আরও বলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে পাঠানো প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে-এ ট্রেন চলবে দুই রুটে। একটি নারায়ণগঞ্জের নিতাইগঞ্জ থেকে চাষাড়া হয়ে সাইনবোর্ড পর্যন্ত। অন্যটি চট্টগ্রাম রোড থেকে পঞ্চবটি পর্যন্ত। তবে এ জন্য কত টাকা ব্যয় হবে তা তিনি জানাতে পারেননি। তিনি বলেন, এটা সবে মাত্র নীতিগত অনুমোদন দেয়া হলো। বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুর সরকার যৌথভাবে ফিজিবিলিটি স্টাডি করার পর ব্যয়ের বিষয়টি ঠিক করবে।

20 November, 2018 : 10:34 am ৩০২

বিশ্বের উন্নত দেশের মতো নারায়ণগঞ্জেও চলবে ইলেকট্রনিক ট্রেন। প্রতিদিন এ ট্রেনে গড়ে যাতায়াত করবে প্রায় এক লাখ ২০ হাজার মানুষ।

মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবের নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়েছে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এতে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠকে কমিটির সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এ প্রকল্প পিপিপি পদ্ধতিতে যৌথভাবে বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুর সরকার বাস্তবায়ন করবে। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোসাম্মৎ নাসিমা বেগম এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সরকার টু সরকার ভিত্তিতে পিপিপি পদ্ধতিতে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনে লাইট র‌্যাপিড ট্রানজিট (এলআরটি) স্থাপনের নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে প্রতিদিন গড়ে এক লাখ ২০ হাজার যাত্রী এ ট্রেনে যাতায়াত করতে পারবে।

তিনি আরও বলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে পাঠানো প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে-এ ট্রেন চলবে দুই রুটে। একটি নারায়ণগঞ্জের নিতাইগঞ্জ থেকে চাষাড়া হয়ে সাইনবোর্ড পর্যন্ত। অন্যটি চট্টগ্রাম রোড থেকে পঞ্চবটি পর্যন্ত। তবে এ জন্য কত টাকা ব্যয় হবে তা তিনি জানাতে পারেননি।

তিনি বলেন, এটা সবে মাত্র নীতিগত অনুমোদন দেয়া হলো। বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুর সরকার যৌথভাবে ফিজিবিলিটি স্টাডি করার পর ব্যয়ের বিষয়টি ঠিক করবে।

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com