মন্দির ভাঙ্গার অপরাধে ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

12 December, 2018 : 10:52 am ২৭০

পিরোজপুরে মন্দির ভাঙা মামলায় সদর উপজেলার সিকদার মল্লিক ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোঃ শহিদুল ইসলামকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। মঙ্গলবার সে পিরোজপুর জেলা জজ আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন জানালে আদালতের বিচারক আঃ মান্নান তার জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। পিরোজপুর জেলা জজ আদালতের পিপি খান মোঃ আলাউদ্দিন খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
জানাযায়, চলতে বছরের ৭ অক্টোবর রাতে পিরোজপুর সদর উপজেলার সিকদার মল্লিক ইউনিয়নের পাঁচপাড়া বাজারে থাকা একটি কালিমন্দির দুর্বৃত্তরা ভাংচুর করে। এ সময় এলাকাবাসী টের পেয়ে প্রতিরোধ করতে এগিয়ে গেলে দুর্বৃত্তদের হামলায় গৌরাঙ্গ লাল মজুমদার (৬০), সুখ রঞ্জন মন্ডল (৪০) ও দিলীপ মৃধা (৩৮) আহত হন।
এ ঘটনায় মন্দির কমিটির সভাপতি সুভাষ চন্দ্র মিস্ত্রী বাদি হয়ে সিকদার মল্লিক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোঃ শহিদুল ইসলামকে প্রধান আসামী সহ ১১জন নামীয় ও আরো ৩০ থেকে ৩৫ জন
অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে পিরোজপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
ইউপি চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলামের আইনজীবী পিরোজপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য ফাতেমা বেগম লাকি জানান, মামলায় আসামী হওয়ার পর শহীদুল ইসলাম ১৪ অক্টোবর হাইকোর্ট থেকে পুলিশ রিপোর্ট পর্যন্ত জামিন পান। এরপর মামলার বাদী পক্ষ এ
জামিন বাতিলের জন্য সুপ্রীম কোর্টে যান। সুপ্রীম কোর্টের
৭ জনের একটি পুনাঙ্গ বেঞ্চ শহীদুল ইসলামকে পিরোজপুর জেলা জজ আদালতে হাজির হয়ে জামিন নেয়ার নির্দেশ দেন। মঙ্গলবার চেয়ারম্যান পিরোজপুর জেলা জজ আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন জানালে আদালতের বিচারক আঃ মান্নান তার জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com