স্বাস্থ্য সেবায় দালালদের দৌরাত্ম্য

8 January, 2019 : 7:00 pm ২০১

তিসাস পাড়ের জেলা ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে বলা হয় সাংস্কৃতির রাজধানী। বর্তমানে কেউ কেউ ব্যঙ্গ করে বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া এখন হাসপাতালের রাজধানী। বলার যথেষ্ট কারণও রেয়েছে। ছোট এই শহরের একটি বড় অংশ হাসপাতালের দখলে। এই শহরে ছোট বড় প্রায় ২ শতাধিক হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার রেয়েছে। স্বাস্থ্য সেবায় নিয়ে জনমনে অভিযোগের অন্ত নেয়। কেউ কেউ মনে করেন চিকিসা সেবার নামে রোগীদের পকেট কাটছেন এসব বেসকারি হাসপাতাল মালিকরা। এতে সাহায্য করছেন চিকিংসকরা। অপ্রয়োজনে পরিক্ষা করিয়ে এতে কমিশন হিসাবে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা এমন অভিযোগও রয়েছে কিছু কিছু চিকিংসকদের বিরোদ্ধে। ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেলা সদর হাসপাতালে প্রতিদিন চিকিংসা সেবা গ্রহণ করছেন কয়েক হাজার মানুষ। চিকিংসক সংকট সহ নানা সমস্যার কারণে সঠিক সেবা না পেয়ে রোগীরা বেসরকারি হাসপাতাল মূখি হচ্ছেন। এই সুযোগ কাজে লাগাচ্ছে একটি বিশাল দালাল চক্র। এই চক্রের সদস্য সংখা প্রায় অর্ধশত। তাদের কাজ হল সদর হাসপাতাল থেকে রোগীকে তার পছন্দের বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া। যে হান থেকে দলালদের দেয়া হয় মোটা অংকের কমিশন। একজন রোগী ভর্তি করাতে পারলে সে হাসপাতাল থেকে দালালদের দেয়া হয় ডাক্টার ফি থেকে কমিশন। পরিক্ষার ফি থেকে কমিশন। ভর্তি ফি থেকে কমিশন। তার পর রোগীকে সহযোগীতা করার জন্য রোগীর স্বজনদের কাছ থেকে বকশিস নিয়ে থাকেন। দালালদের নজর ময়ালের দিকে। গ্রাম থেকে আসা রোগীদের ‘ময়াল’ বলে সম্বোধন করেন তারা! কারণ ময়ালরা জানেনা কোন রোগের জন্য কোন ডাক্টার দেখাতে হবে। কোথায় বসেন কোন ডাক্টার। দালালদের রোগী ডাক্টার দেখাতে কোন সিরিয়ালের প্রয়োজন হয়না। বিশেষ ক্ষমতায় তারা ডাক্টার দেখাতে পারেন। দালালদের বিরোদ্ধে অভিযোগের শেষ নেই। তাদেরই বা কি দুষ আমরা কতটুকু সচেতন? আমরা যদি একটু সচেতন হয় দালালদের হাতে প্রতারিত হওয়া থেকে বাঁচতে পারি। যেনম, আপনার আদরের শিশুটি অসুস্থ আপনি আগে কারো কাছ থেকে জেনে নিন কোন হাসপাতালে কোন শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিংসক রোগী দেখেন। তিনি কয়টা থেকে কয়টা রোগী দেখেন। তা হলে তো আর এই দালালদের সহযোগীতা নিতে হবে না আপনার। প্রতারিত হয়ে অর্থ গচ্ছা দিতে হবেনা। আমাদের হাসপাতাল মালিকরা কি পারেনা যে টাকা দালাল দের কমিশন দেয় সেই টাকা রোগীর কাছ থেকে কম রাখতে? দালাল মুক্ত ব্যবসা করতে? এসব নিয়ে যাদের মাথা ব্যর্থা থাকার কথা তার চুপ কেন? আমারদের চোখে দালালদের কর্মকান্ড ধরা পরে। কর্তৃৃপক্ষের চোখ কি অন্ধ? তাদের চোখে ধরা পরেনা কেন?

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com