নাসিরনগরে ৫টি হিন্দু পরিবারকে বাড়ী থেকে উচ্ছেদের অভিযোগ

27 May, 2019 : 6:32 am ১৯৮

ব্রাক্ষণবাড়িয়া।।

আবারো ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার কুন্ডা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এবং আওয়ামী লীগ নেতা হাজী মোঃ ওয়াছ আলী মিয়ার বিরুদ্ধে ৫টি হিন্দু পরিবারকে তাদের বাড়ী থেকে উচ্ছেদের অভিযোগ পাওয়া গেছে। কুন্ডা ইউনিয়নের কুন্ডা মৌজার মধ্যে (সাবেক দাগ–২৮৭৩,২৯৭৪-বর্তমান দাগ-৬১৭৩ নং চুড়ান্ত বিএস দাগে মোট-২২ শতক), যার বর্তমান বাজার মূল্য প্রায়-প্রতি শতক পাঁচ লক্ষ টাকা হলে বাইশ শতক বাড়ী=-১,১০,০০,০০০/- এক কোটি দশ লক্ষ টাকা, দলিল অনুযায়ী জমির প্রকৃত মালিক অমূল্য কুমার দত্ত ওরুফে নিশু দত্ত, অজয় কুমার দত্ত ওরুফে অন্তু স্যার, অমূল্য কুমার দত্ত, অজয় কুমার দত্ত। তিনি কারো কাছে এই জমি বিক্রি করে নাই। উল্লেখ্য হরিদাস সরকারের পরিবার দত্ত বাবুদের বাড়ীতে আশ্রিত হিসাবে ৫০ বছর ধরে বসবাস করছে । (সাবেক দাগ–২৮৭১ বর্তমান দাগ–৬১৭৫ দাগে (মন্দিরের নামে)-০৯ শতক (নয় শতক) বাড়ী ভুমি। যার বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় প্রতি শতক বিশ লক্ষ টাকা হলে নয় শতক এর মূল্য প্রায়–১,৮০,০০,০০০/-এক কোটি আশি লাখ টাকা। (সাবেক দাগ–২৮৭৫ বর্তমান দাগ-৬১৭৪ দাগে আনুমানিক-১২ শতক পুকুর মন্দিরের নামে) যার বর্তমান বাজার মুল্য–প্রতি শতক এক লক্ষ টাকা হলে বার শতক এর মূল্য প্রায়–১২,০০,০০০/-বার লক্ষ টাকা। (সাবেক দাগ–২৮৭২ বর্তমান দাগ–৬১৭১ দাগে–১১ শতক(এগার শতক)–কুন্ডা হাই স্কুলের, যার বর্তমান বাজার মুল্য-প্রায় প্রতি শতক বিশ লক্ষ টাকা দরে এগার শতক), যার বর্তমান প্রায় মুল্য–২,২০,০০,০০০/-দুই কোটি বিশ লক্ষ টাকা। এলাকাবাসীর দাবী প্রশাসন তদন্ত সাপেক্ষে এই ৫ টি পরিবারের ভিটেমাটি পুনরায় ফিরিয়ে দেওয়া হোক, সেই সাথে হাজী মোঃ ওয়াছ আলী মিয়াকে আওয়ামিলীগ থেকে বহিষ্কার করে, দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দেওয়ার আহব্বান জানান।

এব্যাপারে নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইফুল কবীর জানান আমি এ ব্যাপারে কিছুই জানিনা,আমাকে কেউ আমাকে এবিষটি জানান নি।

নাসিরনগর থানার অফিসার ইনচার্জ( ওসি) সাজিদুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন আমি এ বিষটি শুনেছি তবে বিস্তারি শুনে আপনাকে জানাতে হবে।

নাসিরনগর প্রেসক্লাব সভাপতি সুজিত চক্রবর্তীর সাথে কথা বললে তিনি বলেন এঘনাটি সত্য তবে ভুক্তবোগীরা কেউ আমাদের কাছে আসেনি।

এদিকে জাতীয় হিন্দু মহাজোট ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলা কমিটির সাধারন সম্পাদক প্রবীর চৌধূরী রিপন বলেন আমরা সংখ্যালঘু সম্প্রদায় এদেশে দিনের পর দিন নির্যাতিত আমাদের পাশে দাড়ানোর মত কাউকেই আমরা পায়নি।আমরা এদেশে যাজাবরের মত বসবাস করছি।আমদের অনেকেই আছে নির্যাতন কারীদের ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পায় না তবে এখন আমরা জেগেছি এর প্রতিবাদ করব প্রয়োজন হলে প্রতিরোধ করার জন্যও আমাদের লোকজন প্রস্তুত আছে।

ভুক্তবোগী ও নির্যাতিত হরিদাস সরকার জানান আমরা খুবই নির্যাতিত আমদেরকে বাড়ী থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা করছে আমি নিরুপায় তাদের ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পায় না,।যে কোন সময় তারা আমাদেরকে প্রানে মেরে ফেলতে পারে।

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com