লজ্জার কিছু নেই সুস্থ থাকলে আমিও মাঠে গিয়ে ধান কাটাতাম- প্রধানমন্ত্রী

28 May, 2019 : 4:50 am ১৯৫

ঢাকা।।

মাঠে গিয়ে কৃষকের পাশে থাকার জন্য মন্ত্রিসভার সদস্যসহ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, মাঠে গিয়ে ধান কাটায় কৃষককে সহায়তা দিতে হবে। এতে লজ্জার কিছু নেই। সম্পূর্ণ সুস্থ থাকলে নিজেও মাঠে গিয়ে ধান কাটায় অংশ নিতেন বলে এ সময় উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর তেজগাঁওয়ের কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকের পর অনানুষ্ঠানিক আলোচনায় ধানের বাম্পার ফলন, ধানের মূল্য সংকট এবং মাঠ থেকে ধান কাটার বেলায় চলমান কৃষি শ্রমিক  সংকট নিয়ে কথা হয়। কৃষি শ্রমিক পাওয়া গেলেও তাদের মাত্রাতিরিক্ত পারিশ্রমিকের প্রসঙ্গও বৈঠকের আলোচনায় স্থান পায়।

এ সময় মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী এবং উপমন্ত্রীদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, কৃষি খাতে সরকার বীজ, সার, কীটনাশক, কৃষি উপকরণসহ ব্যাপক সহায়তা দেওয়ায় এবার ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। ফলে ধান মজুত রাখার জন্য পর্যাপ্ত জায়গার সংকট দেখা দিয়েছে। এ অবস্থায় কৃষকের পাশে দাঁড়ানোর নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, কৃষককে সহায়তা দিতে হবে। মাঠে গিয়ে ধান কাটতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ইতিমধ্যে কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে। ধান কাটা রীতিমতো উৎসবে রূপ নিয়েছে। মাঠে গিয়ে ধান কাটার এ উৎসবে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের অংশ নিতে হবে। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, কর্মসংস্থান বেড়েছে। এ কারণেই ধান কাটার জন্য চাহিদা অনুযায়ী কৃষি শ্রমিক পাওয়া যাচ্ছে না। অথচ কর্মসংস্থান হচ্ছে না বলে কেউ কেউ সরকারের সমালোচনা করছে।

কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক মন্ত্রিসভার বৈঠকে চাল রফতানির প্রস্তাব করেন। এ সময় চাল রফতানির নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কৃষি বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, চাল রফতানি করা হলে ধানের দাম বাড়বে।

নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী মন্ত্রিসভায় বলেন, বগুড়ায় ধানের জমিতে আগুন দেওয়া হয়নি। অথচ এ নিয়ে গুজব ছড়ানো হয়েছে। তিনি এসব বিষয়ে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানোর পরামর্শ দেন।

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com