আজ শ্রীশ্রী মনসা পূজা

18 August, 2019 : 11:51 am ৪৪৪

ডেস্ক।।

মনসা দেবী কে? দেবী ভাগবত পুরান বলে-

পুরা নাগভয়ক্রান্তা বভুবুর্মাননববা ভুবি ।
গতাস্তে শরণং সর্বে কশ্যপং মুনিপুঙ্গবম্ ।।
মন্ত্রংশ্চ সসৃজ্যে তীতঃ কশ্যপো ব্রহ্মণান্বিতঃ ।
বেদবীজানুসারেণ চোপদেশেন ব্রহ্মণঃ ।।
মন্ত্রাধিষ্ঠাতৃদেবীং তাং মনসা সসৃজ্যে তথা ।
তপসা মনসা তেন বভূব মনসা চ সা ।।

( দেবীভাগবত- নবম স্কন্ধ- অষ্টচত্বারিংশোহধ্যায়ঃ )

এর অর্থ- পুরাকালে পৃথিবীতে নাগের ভয়ে ভীত হয়ে মনুষ্য গণ মহামুনি কশ্যপের শরণাপন্ন হয়েছিলেন । সেই সময় কশ্যপ মুনি মানুষদের ভীত অবস্থা দেখে ব্রহ্মার কাছে গেলেন। ব্রহ্মার আদেশে কশ্যপ মুনি নাগভয় থেকে মুক্তির জন্য এক বেদোক্ত বীজ জপ করলেন, নাগভয়ের দূরীকরণের জন্য এক বিদ্যার কথা ভাবলেন। তখনই তাঁর মন থেকে মনসার সৃষ্টি হয় ।

এই বিদ্যা বলতে কবিরাজী বা আয়ুর্বেদিক ঔষধের কথা বলা হয়েছে । কশ্যপ মুনি মানব কল্যাণের জন্য সাপে কাটা রোগীকে বাঁচিয়ে তোলার জন্য ঔষধি আবিস্কারের চিন্তা করেন । এই শুভ চিন্তার সময় তাঁর মন থেকে মনসা দেবীর উৎপত্তি হয় । এইজন্য সর্বদা মনে শুভচিন্তা পোষোন করা কর্তব্য। এতে মনে দৈবী সত্ত্বা সৃষ্টি হয়- বিপরীত করলে অসুর সৃষ্টি হয় ।

মনসা দেবী পুষ্কর তীর্থে গিয়ে তিন যুগ ধরে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের ধ্যান করে দর্শন পেলেন। আবার ভগবান শ্রীকৃষ্ণ ত্রিলোকের দেবতাদের সহিত প্রথম মা মনসার পূজা করলেন । এরপর ভগবান শিব ও কশ্যপ মুনি মা মনসার পূজা করেন । উক্ত পুরাণ বলে-

ত্রিযুগঞ্চ তপস্তপ্তা কৃষ্ণস্য পরমাত্মনাঃ ।
সিদ্ধা বভুব সা দেবী দদর্শ পুরতঃ প্রভুম্ ।।
দৃষ্টা কৃশাঙ্গীং বালাঞ্চ কৃপয়া চ কৃপানিধিঃ ।
পূজাঞ্চ কারয়ামাস চকার চ স্বয়ং হরিঃ ।।
বরঞ্চ প্রদদৌ তস্যৈ পূজিতা ত্বং ভবে ভব ।
বরং দত্তা চ কল্যাণ্যৈ ততশ্চান্তর্দধে হরিঃ ।।
প্রথমে পূজিতা সা চ কৃষ্ণেন পরমাত্মনা ।
দ্বিতীয়ে শঙ্করেণৈব কশ্যপেণ সুরেশ চ ।।
মুনিনা মনুনা চৈব নাগেন মানবাদিভিঃ ।
বভুব পূজিতা সা চ ত্রিষু লোকেষু সুব্রতা ।।

( দেবীভাগবত- নবম স্কন্ধ- অষ্টচত্বারিংশোহধ্যায়ঃ )

এর অর্থ- মা মনসা পুষ্কর তীর্থে গমন করে তিন যুগ ধরে পরমাত্মা শ্রীকৃষ্ণের ধ্যান করে সিদ্ধ হলেন এবং সামনে শ্রীকৃষ্ণকে দর্শন পেলেন। কৃপানিধি হরি সেই কৃশাঙ্গী বালিকাকে দেখে নিজে পূজা করলেন ও অন্য সকলের দ্বারা পূজা করাইলেন । ভগবান হরি এরপর সেই বালিকাকে “তুমি ত্রিজগতে পূজ্য হও” বলে আশীর্বাদ করে অন্তর্ধান হলেন । পরমাত্মা কৃষ্ণ, প্রথমে মা মনসার পূজা করলেন। এরপর মহাদেব ও কশ্যপ মুনি মা মনসার পূজা করলেন । ক্রমে ক্রমে মুনি, মনু, নাগ এবং মানব ও ত্রিলোকের লোকজন সেই দেবীর পূজা করতে লাগলেন ।

লোকাচার প্রিয় বাঙ্গালীদের ধারনা মা মনসা নাগেদের দেবী, নাগ ধূপের গন্ধ সহ্য করতে পারে না। তাই মনসা পূজায় ধূপ নিষিদ্ধ । দেবী ভাগবতে এমন কোনো বিধান নেই। সেখানে মা মনসার পূজায় ধূপ দিতে বলা হয়েছে । যথা-

ইতি ধ্যাত্বা চ তাং দেবীং মূলেণৈব প্রপূজয়েৎ ।
নৈবদ্যের্বিবিধৈর্ধূপেঃ পুষ্পগন্ধানুলেপনৈঃ ।।

( দেবীভাগবত- নবম স্কন্ধ- অষ্টচত্বারিংশোহধ্যায়ঃ )

এর অর্থ- দেবী মনসার ধ্যান করে মূল মন্ত্রে নানাপ্রকার নৈবদ্য, ধূপ, দীপ, পুস্প এবং অনুলেপন দ্বারা পূজা করবে ।

এই থেকে স্পষ্ট মা মনসার পূজায় ধূপ দেওয়া যায় । যাঁদের মনে তবুও সন্দেহ থাকে তাঁরা নারকেল খোসার ধূপের পরিবর্তে অবশ্যই ধূপকাঠি দিতে পারেন । কেউ কেউ আছেন মা মনসার পূজার দুধ- কলা ফেলে দেন । এটা অনুচিত । এতে জিনিষের অপচয় তো হয়- এছাড়া প্রসাদ নষ্ট করা মহাপাপ । মায়ের প্রসাদ কখনোই বিষাক্ত হয় না । ভক্তিচিত্ত সহকারে মায়ের প্রসাদ গ্রহণ করুন । মা মনসার এক নাম “বিষহরি”। মা বিষ হরণ করেন। বলতে গেলে সাপের বিষের থেকেও ভয়ঙ্কর বিষ আমাদের মনে থাকে। লোভ, হিংসা রূপে আমাদের তিলে তিলে দগ্ধ করে মারে। মায়ের কাছে প্রার্থনা জানাবো, তিঁনি যেনো আমাদের মন থেকে এই বিষ গুলো হরণ করেন।

মনসামঙ্গল কাব্যে বেহুলা ছিলেন অরুন্ধতি, সাবিত্রী, তারা, দ্রৌপদীর ন্যায় মহাসতী। নিজ সতীত্ব বলে স্বর্গ অবধি গেছিলেন। হিন্দু ধর্ম মতে বলে পতিব্রতা নারীকে স্বয়ং দেবতারা অবধি প্রনাম করে শ্রদ্ধা করেন। আজ সেই হিন্দু নারীদের কি বা অবস্থা ! স্বামী, শ্বশুর কুল এমনকি নিজ ধর্ম অবধি ত্যাগ করে অন্যত্র গমন। যে নারী ছিলেন গৃহলক্ষ্মী- সে আজ নিজ লক্ষ্মী স্বরূপ বিসর্জন দিয়েছেন। সব নারী নয়, কিছু নারী। নারীকে গৃহের লক্ষ্মী বলা হয়। তাই লক্ষ্মীর পাঁচালীতে বলা হয়- “গৃহলক্ষ্মী রূপে বিরাজো প্রতি ঘরে ঘরে।” সংসার, দেব- দ্বিজ- গুরু- শাস্ত্র ভক্তি, ধর্ম পালন ইত্যাদির মাধ্যমে প্রতি গৃহের নারীরাই “লক্ষ্মী” রূপ ধারণ করে থাকেন। বেহুলা সহ সতী নারীদের আদর্শ আমাদের হিন্দু নারীদের ত সেই শিক্ষাই দেয়। বিভিন্ন বার ব্রত পালন মোটেও কুসংস্কার নয়। এগুলো ত গৃহলক্ষ্মীর স্বরূপ , বৈশিষ্ট্য। হিন্দু নারীদের সেই ভূমিকাতে আসতে হবে। তবে আদর্শ “গৃহস্থ পরিবার” ও সমাজ গঠন হয়।

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com