সারা দেশে সকল সংখ্যালঘু নির্যাতনের বিচার করতে হবে- ঐক্য পরিষদ

7 September, 2019 : 3:03 pm ২২৯

ব্রাক্ষনবাড়িয়া।।

কেন্দ্রীয় কর্মসুচীর অংশ হিসাবে আজ ব্রাক্ষণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সমানে জেলা হিন্দু বৌদ্ব খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের মানববন্দন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। জেলা কমিটির সভাপতি দিলীপ কুমার নাগের সভাপত্তিতে সভায় বক্তব্য জেলা কমিটির সাধারন সম্পাদক প্রদ্যুৎ নাগ,সভাপতি মন্ডলীর সদস্য বীর মুক্তিযোদ্দা এডঃ মিন্টু ভৌমিক,জহর লাল সাহা,বীর মুক্তিযোদ্দা সুনীল কুমার দেব,সদর উপজেলা সভাপতি প্রবীর কুমার দেব,জেলা কমিটির যুগ্ন সম্পাদক এডঃ আদেশ চন্দ্র দেব,সাবেক কমিশনার সুভাষ দাস,মলয় নাথ,ডাঃ মনোরন্জন দেব নাথ,সাংগঠনিক সম্পাদক খোকন কান্তি আচায্য,সহআইন সম্পাদক এডঃ উত্তম দাস, সুভাষ দপব নাথ,ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক বিজয় মল্লিক,সদস্য বীর মুক্তিযোদ্দা সুবোধ দাস,হিন্দু মহাজোটের সাধারন সম্পাদক প্রবীর চৌধূরী রিপন,ঐক্য পরিষদের সদস্য অজিত দাস,সভ্যসাচী পাল,প্রনেষ শর্মা,দিলীপ বর্মন ও ছাত্র ঐক্য পরিষদের আহব্বায়ক সুভন আচায্য প্রমুখ।সভায় বক্তাগন বলেন সারাদেেশে যে ভাবে সংখ্যালঘুদের উপর নির্যাতন ও নিপিরন চলছে তা অবিলম্বে বন্দের পদক্ষেপ নিতে হবে এবংসরকারের একজন এমপি মহিবুর রহমান কতৃক কোয়কাটায় সংখ্যলঘুদের ৮ টি দোকান লুট করে নিয়েছে।বক্তাগন আরো বলেন জেলার বিজয়নগরের সাতবর্গ গ্রামের গৌউর সাহার বাড়িতে হামলা ও তার দুই মেয়ের উপর নির্যতন চালায় পুলিশের এক সোর্স, কসবার ভরাজাঙ্গাল ও চন্দ্র পুরে ৩ টি মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুর করা হলে এর কোন বিচার পাওয়া যায়নি এরপর আবারো চন্দ্রপুর শশ্মানের প্রতিমা ভাংচুর করে দুরবৃত্তরা, আমরা এসকল অপকর্ম থেকে রেহায় পেতে চায় এবং অবিলম্বে দোষী ব্যাক্তিদেরকে সনাক্ত করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানান।বক্তাগন সকারের প্রতি ই্ঙ্গিত করে বলেন শারদীয় দূর্গা পুজার সময় যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি পরিক্ষার সময় সুচী ঘোষনা করেছে তা অবিলম্বি প্রত্যাহারের দাবী জানান।

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com