ব্রাহ্মণবাড়িয়া।। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৃথক স্থান থেকে ২ নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার (০৮ জুন) দুপুরে জেলা সদর ও বাঞ্ছারামপুর উপজেলা থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ জানায়, দুপুরে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা সদরের আফতাবনগর এলাকার তিতাস নদীতে অজ্ঞাতপরিচয় এক নারীর মরদেহ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে। ওই নারীর পরনে সেলোয়ার কামিজ ও ওড়না ছিল। তার বয়স আনুমানিক ২৫ বছর। তার পরিচয় শনাক্ত করতে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এদিকে সকালে সদর উপজেলার বুধল ইউপির বুধল গ্রাম থেকে আব্দুর রহমানের স্ত্রী রায়হানা বেগমকে (৪৫) গলায় আঘাতপ্রাপ্ত অবস্থায় জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। খবর পেয়ে পুলিশ ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। পুলিশের দাবি ঘটনাটি সন্দেহজনক হওয়ায় এর তদন্ত চলছে। জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন বলেন, দুইজনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। "/>

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৃথক স্থান থেকে দুই নারীর মরদেহ উদ্ধার

8 June, 2020 : 10:15 am ৩৭৪

ব্রাহ্মণবাড়িয়া।।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৃথক স্থান থেকে ২ নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার (০৮ জুন) দুপুরে জেলা সদর ও বাঞ্ছারামপুর উপজেলা থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ জানায়, দুপুরে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা সদরের আফতাবনগর এলাকার তিতাস নদীতে অজ্ঞাতপরিচয় এক নারীর মরদেহ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে। ওই নারীর পরনে সেলোয়ার কামিজ ও ওড়না ছিল। তার বয়স আনুমানিক ২৫ বছর। তার পরিচয় শনাক্ত করতে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এদিকে সকালে সদর উপজেলার বুধল ইউপির বুধল গ্রাম থেকে আব্দুর রহমানের স্ত্রী রায়হানা বেগমকে (৪৫) গলায় আঘাতপ্রাপ্ত অবস্থায় জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। খবর পেয়ে পুলিশ ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। পুলিশের দাবি ঘটনাটি সন্দেহজনক হওয়ায় এর তদন্ত চলছে। জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন বলেন, দুইজনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

[gs-fb-comments]