করোনার মধ্যেই জটিল রোগীর সেবা দিয়ে যাচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

18 April, 2021 : 11:50 am ১৫১

ব্রাহ্মণবাড়িয়া।।

হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায় কসবা রাইতলা থেকে ২৬ বছরের মিসেস সুমি আক্তার গত ১২ এপ্রিল মেডিকেল কলেজে ভর্তি হয়। রোগী জন্মগত হৃদরোগ ফেলট টেট্রালজি ( Felot tetralogy) রোগে ভুগছিলেন। বর্তমানে তিনি ৫ ম বারের মতো গর্ভবতি। এখন ৩৯ সপ্তাহ চলতেছে। উচ্চরক্তচাপের জন্য প্রি একলামসিয়া ও হেল্প সিন্ড্রোম এ ভুগছেন। রোগী আমাদের জানান এর আগে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও ঢাকার ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনে চিকিৎসা নিতেন। বর্তমানে করোনার জন্য ঢাকা যাওয়া খুবই কঠিন আবার বিভিন্ন হাসপাতালে খোজ নিয়ে কোথাও ICU/ CCU বেড পাওয়া না যাওয়ার কারনে আমরা ডাঃ আবু সাইদ সাহেবের মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হই।হাসপাতালের গাইনী চিকিৎসক ডাঃ রনজিত বিশ্বাস রোগী দেখেন এবং আমাদেরকে রোগ সম্পর্কে বিস্তারিত অবহিত করেন। আমার বোন ও আমার শ্বশুর রিস্ক নিতে রাজি হয়ে অপারেশন করতে বলেন।
ডাক্তার এনেস্থিসিয়া বিশেষজ্ঞ মমতাজুল হকের সাথে কথা বলেন।আমরা ১২ তারিখে সকালে ভর্তি হই এবং ৯ টায় অপারেশন শুরু হয়।এখন আমি সম্পুর্ন ভালো আছি। আমরা এখানের চিকিৎসায় খুবই খুশী।রোগীর চিকিৎসক ডাঃ রনজিত বিশ্বাস বলেন -মিসেস সুমির অবস্থা খুব খারাপ ছিলো। তিনি felot tetralogy with help Syndrome. রোগে ভুগিতে ছিলেন। আমরা রোগীর আত্মীয়দের খুব ভালো ভাবে কাউন্সেলিং করি। তাহারা আমাদের উপর আস্থা রাখেন এবং আমাদেরকে রোগীর চিকিৎসা চালিয়ে যেতে বলেন। রোগীর অপারেশন সম্পন্ন হয়। আমরা পোস্ট অপারেটিভ ক্লোজ মনিটরিং এর ব্যবস্থা করি। আমরা মাল্টি ডিসিপ্লিনারি এপ্রোচ প্রয়োগ করি।সময় মতো মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ও কার্ডিওলজিস্ট দেখতেন। এখন রোগী সম্পুর্ন সুস্থ। আজ সুমী সুস্থ বাচ্চা নিয়ে বাসায় যাচ্ছেন। করোনা কালে করোনা রোগীসহ বিভিন্ন জটিল রোগীর চিকিৎসা দিয়ে এই অঞ্চলের অসুস্থ মানুষের সেবা দিয়ে যাচ্ছে ব্রাহ্মণ বাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com