সরাইলের সেই তিন ভুমি কর্মকর্তা বদলী

11 May, 2021 : 11:26 am ১১৮

সরাইল।।

সরাইলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর ও জমি বিক্রির নামে প্রতারণার মাধ্যমে এক ভূমিহীন দুস্থ পরিবার থেকে দেড় লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে তিন ইউনিয়ন ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তাকে শাস্তিমূলক বদলি করাসহ তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থার উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রশাসন। অভিযুক্ত ভূমি কর্মকর্তারা হলেন- সরাইল উপজেলার মলাইশ ইউনিয়ন ভূমি অফিসের ইউনিয়ন ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা মো. হারুন মিয়া, তেলিকান্দি ইউনিয়ন ভূমি অফিসের ইউনিয়ন ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা আ: কুদ্দুছ ও সরাইল সদর ইউনিয়ন ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা মো. আশিকুল ইসলাম। গত ৯ মে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর সন্দ্বীপ তালুকদার স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। এতে দেখা যায় ইউনিয়ন ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা হারুন মিয়াকে জেলার নাসিরনগর উপজেলার চাতলপাড় ইউনিয়ন ভূমি অফিস, আ: কুদ্দুছকে চাপরতলা ইউনিয়ন ভূমি অফিস ও আশিকুল ইসলামকে ফান্দাউক ইউনিয়ন ভূমি অফিসে বদলি করা হয়েছে। একই আদেশে চাতলপাড় ইউনিয়ন ভূমি অফিসের ইউনিয়ন ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা কায়েস আহাম্মদ খানকে মলাইশ ভূমি অফিস ও চাপরতলা ভূমি অফিসের মো. নবী হোসেনকে তেলিকান্দি ইউনিয়ন ভূমি অফিসে পদায়ন করা হয়েছে। উল্লেখ্য, মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার আশ্রয়ণ প্রকল্প ২-এর আওতায় সরাইল উপজেলায় প্রথম ধাপে ১০২ পরিবার প্রত্যেককে দুই শতাংশ জমিসহ পাকা ঘর পায়। এরমধ্যে উপজেলার শাহাজাদাপুর এলাকায় আশ্রয়ণ প্রকল্পে দুই শতক জমিসহ ৯০ নম্বর ঘরটির বরাদ্দসহ যৌথ দলিল সম্পাদনা হয় আব্দুল হাশিম ও তার স্ত্রী সেলিনা বেগমের নামে। আব্দুল হাশিম উপজেলার অরুয়াইল ইউনিয়নের রাণীদিয়া গ্রামের গোলাম মোস্তফা মিয়ার ছেলে। তিনি একজন বিত্তশালী এবং সফল কৃষক। তবে প্রধানমন্ত্রীর উপহার এই ঘর ও জমি বরাদ্দের ব্যাপারে তিনি কিছুই জানেন না। রাণীদিয়া গ্রামে বাড়ির পাশে একখণ্ড খাস জমি লীজ পেতে আব্দুল হাশিম কয়েকমাস আগে ছবি, জাতীয় পরিচয়পত্র ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র স্থানীয় ভূমি অফিসে জমা দিয়েছিলেন বলে তিনি দাবি করেন। এর বেশিকিছু তার জানা নেই।

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com